প্রচ্ছদ / রংপুর / বিস্তারিত
 

For Advertisement

600 X 120

৩ শ্রমিকের মৃত্যুর ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন

৮ মার্চ ২০১৮, ১০:৩৫:৫৩

পঞ্চগড় ফিলিং স্টেশন নামে একটি নির্মাণাধীন পেট্রোল পাম্পের ছাদ ধসে ৩ নির্মাণ শ্রমিকের মৃত্যুর ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। পঞ্চগড়ের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, ‘ওই পেট্রোল পাম্পে নির্মাণাধীন ছাদ ধসে হতাহতের ঘটনায় পঞ্চগড়ের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) আব্দুল আলীম খান ওয়ারেসীকে প্রধান করে ৫ সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্ত কমিটিকে আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে প্রতিবেদন দাখিল করতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। প্রতিবেদন পেলেই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

তিন শ্রমিকের নিহতের ঘটনা ছাড়াও গুরুতর আহত অবস্থায় ৬ শ্রমিককে উদ্ধার করা হয়েছে। পঞ্চগড়-ঢাকা মহাসড়কের খোলাপাড়া খানপুকুর এলাকায় ওই পাম্পের ছাদ ঢালাইয়ের কাজ চলাকালীন এ দুর্ঘটনা ঘটে। পঞ্চগড় ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার নিরঞ্জন সরকার এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

 

For Advertisement

600 X 120

ফায়ার সার্ভিস, পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়; বুধবার দুপুর দেড়টার দিকে ওই ফিলিং স্টেশনের সামনের অংশের ঢালাই চলার সময় ছাদটি হঠাৎ ধসে পড়ে। এতে বেশ কয়েকজন শ্রমিক সেখানে চাপা পড়েন। পুলিশ, পঞ্চগড় ও বোদা ফায়ার সার্ভিসের দু’টি ইউনিট এবং স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় চাপা পড়া ৯ জন শ্রমিককে উদ্ধার করা হয়। হাসপাতালে নেওয়ার পর এদের ৩ জনকে মৃত ঘোষণা করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক।

পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার ডা. মো. মনোয়ারুল ইসলাম জানান, হাসপাতালে নিয়ে আসা ৯ নির্মাণ শ্রমিকের মধ্যে ৩ জনকে মৃত পাওয়া যায়। ৩ জনকে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয় এবং ৩ জন শ্রমিক পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

নিহতরা হলেন জেলা শহরের পূর্ব জালাসী এলাকার আক্কাস আলীর ছেলে গোলাম মাওলা লিটন (৩৫), চাঁনপাড়া এলাকার ইউসুফ আলীর ছেলে বাবু (২৬) ও পঞ্চগড় পৌরসভার দর্জিপাড়া এলাকার আব্দুল বাতেনের ছেলে সাজু (৩৫)।

আহতরা হলেন পঞ্চগড় সদর উপজেলার ডুডুমারী এলাকার হাবিবুর রহমানের তহিদুল ইসলাম (২০), খানপুকুর এলাকার আব্দুল কাদেরের ছেলে তোয়াবুর রহমান (৩০), বাবলু ইসলামের ছেলে রহিম উদ্দিন (২০), মোমিনুল ইসলামের ছেলে মিজানুর রহমান (২২) ও বোদা উপজেলার কালিয়াগঞ্জ আমতলা এলাকার রহিম উদ্দিনের ছেলে জাহাঙ্গীর হোসেন (৩৫)। এদের মধ্যে তহিদুল, তোয়াবুর ও রহিমের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাদের উন্নত চিকিৎসার জন্য রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।

 

For Advertisement

600 X 120

কারেন্ট নিউজ বিডি'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। 

পাঠকের মতামত: