প্রচ্ছদ / আইন-অপরাধ / বিস্তারিত

For Advertisement

750px X 80px

Call : +8801911140321

মহানবীকে নিয়ে কটূক্তি, জবির শিক্ষার্থী দুই দিনের রিমান্ডে

নিজস্ব প্রতিবেদক   ১২ এপ্রিল ২০১৯, ৭:০০:৫০

হযরত মুহাম্মদ (সা.)-কে নিয়ে ফেসবুকে অপমানজনক পোস্ট ও মন্তব্য করার অভিযোগে গ্রেফতার জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের কটুরহাদ হোসাইন ফাহাদকে দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

শুক্রবার (১২এপ্রিল) তাকে ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করে পুলিশ। এ সময় রাজধানীর কোতোয়ালি থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে করা মামলার সুষ্ঠু তদন্তের জন্য পাঁচ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা থানার উপ-পরিদর্শক রুবেল খান। শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম দেবব্রত বিশ্বাস দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

For Advertisement

750px X 80px
Call : +8801911140321

বিষয়টি কে নিশ্চিত করেছেন কোতোয়ালি থানার আদালতের সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা পুলিশের উপ-পরিদর্শক হেলাল উদ্দিন।

এর আগে বৃহস্পতিবার (১১ এপ্রিল) রাতে অভিযান চালিয়ে কোতোয়ালি থানা পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে।

ফেসবুকে অপমানজনক পোস্ট ও মন্তব্য প্রকাশ করার জন্য গত ৮ এপ্রিল বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের শিক্ষার্থী নূর-ই-আলম ফরহাদের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করেন। এরই পরিপ্রেক্ষিতে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

ফরহাদ জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের ১৩তম ব্যাচের ছাত্র। ক্যাম্পাস পরিচয়পত্র নম্বর (বি ১৭০১০১০৩৬)।

গত ৩ এপ্রিল সময় টেলিভিশনের অনলাইনে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.)-কে কটূক্তি করলে ব্রুনাইতে মৃত্যুদণ্ড-সংক্রান্ত একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়। এই নিউজে জবি শিক্ষার্থী ফরহাদ কমেন্ট করেন। এতে তিনি বলেন, মহানবী যে অন্যান্য ধর্ম নিয়ে কটূক্তি করেছিল এবং অনুভূতিতে আঘাত দিয়েছিল সেটার বিচার কে করবে?

এ ছাড়া গত ১৮ মার্চ ইসলাম ধর্ম এবং ফেরেশতাদের ব্যঙ্গ করে একটি পোস্ট দেন ফাহাদ। তার ওই পোস্টে বিভিন্ন আইডি থেকে কমেন্ট আসলে তাদের সঙ্গে তিনি অসৌজন্যমূলক কথাবার্তা বলেন। তাছাড়াও বিভিন্ন সময়ে তিনি ধর্ম নিয়ে কটূক্তি করে ফেসবুকে পোস্ট দিতেন।

এরই পরিপ্রেক্ষিতে ফাহাদের ফাঁসিরদাবিতে কয়েক দিন ধরে জবির সাধারণ ছাত্ররা ক্যাম্পাসে মিছিল-সমাবেশ করে আসছিলেন ।

For Advertisement

750px X 80px

Call : +8801911140321

কারেন্ট নিউজ বিডি'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। 

পাঠকের মতামত: