For Advertisement

750px X 80px Call : +8801911140321

ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রীর শপথ নিলেন বাংলাদেশের ছেলে বিপ্লব দেব

কারেন্ট নিউজ বিডি   ৯ মার্চ ২০১৮, ৬:৪৪:৫৬

ঢাকা০৯ মার্চকারেন্ট নিউজ বিডিভারতের ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি বিপ্লব দেব। আজ শুক্রবার সকালে জমকালো শপথ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। আরও ছিলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহসহ দলটির নেতারা।

বিপ্লব রাজ্য বিজেপির দায়িত্ব পান ২০১৬ সালের জানুয়ারিতে। তার আসল বাড়ি বাংলাদেশে, চাঁদপুরের কচুয়ায়। উপজেলার মেঘদাইর গ্রামের হিরুধন দেব ও মিনা রানী দেবের একমাত্র ছেলে বিপ্লব। ১৯৭১ সালে তার মা-বাবা ত্রিপুরা চলে যান। তারা সেখানেই স্থায়ী বাসিন্দা হন। বিপ্লবের অনেক আত্মীয়স্বজন কচুয়ায় বসবাস করছেন। তার চাচা প্রাণধন দেব কচুয়া উপজেলা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি।

For Advertisement

750px X 80px
Call : +8801911140321

দায়িত্ব গ্রহণের আগে বিপ্লব এনডিটিভিকে তার অগ্রাধিকারের ক্ষেত্র ও নতুন ভূমিকার কথা জানান। ত্রিপুরার জনগণকে উন্নয়নের প্রতিশ্রুতি দিয়ে তিনি বলেন, আমি ত্রিপুরাবাসীকে ভালোবাসি। কমিউনিস্ট ও মানিক সরকারকেও ভালোবাসি। কিন্তু আমি হতাশ যে তারা (সিপিআই-এম) অনেকটা সময় পেয়েও রাজ্যের উন্নয়নে সম্পদের সদ্ব্যবহার করেনি।

গত মাসে ত্রিপুরায় বিধানসভা নির্বাচন হয়। বামদের দুর্গ গুঁড়িয়ে দিয়ে নির্বাচনে বিপুল জয় পায় বিজেপি। রাজনীতিতে অনেকটা আনকোরা বিপ্লবকে সামনে রেখেই বিজেপি নির্বাচন করেছিল। দলটি ৩৫টি আসন পেয়েছে। আটটি আসন পাওয়া আঞ্চলিক দল ইন্ডিজেনিয়াস পিপলস ফ্রন্ট অব ত্রিপুরার সঙ্গে জোট বেঁধে সরকার গঠন করেছে বিজেপি। দীর্ঘদিন ক্ষমতায় থাকা মানিক সরকারের দল কমিউনিস্ট পার্টি অব ইন্ডিয়া (সিপিআই-এম) পেয়েছে মাত্র ১৬টি আসন।

এদিকে, শপথ নেওয়ার আগে বিপ্লব দেব বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ফোন করেছেন বলে জানা গেছে। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের প্রেস উইং জানিয়েছে, ত্রিপুরার উন্নয়নে বাংলাদেশের সহযোগিতা কামনা করেছেন বিপ্লব। তাকে সহযোগিতার আশ্বাসও দিয়েছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী।

For Advertisement

750px X 80px Call : +8801911140321

কারেন্ট নিউজ বিডি'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। 

পাঠকের মতামত: