প্রচ্ছদ / খেলাধুলা / বিস্তারিত

For Advertisement

750px X 80px

Call : +8801911140321

আফগানিস্তানকে হারিয়ে, ফাইনালে পাকিস্তানের মুখোমুখি বাংলাদেশ

কারেন্ট নিউজ বিডি   ২১ নভেম্বর ২০১৯, ৫:১০:২৬

ইমার্জিং এশিয়া কাপের সেমিফাইনালে আফগানিস্তান অনূর্ধ্ব-২৩ দলকে বড় ব্যবধানে হারিয়ে ফাইনালে উঠেছে বাংলাদেশ। আফগানদের ২২৯ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ৭ উইকেট ও ৬১ বল হাতে রেখে ম্যাচ জিতে নেয় বাংলাদেশ।

বৃহস্পতিবার মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করে ৯ উইকেট হারিয়ে ২২৮ রান সংগ্রহ করে আফগানিস্তান।
২২৯ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ওপেনার মোহাম্মদ নাঈম (১৭) রান করে আউট হয়। এরপর ১০৭ রানের দুর্দান্ত জুটি গড়ে দলকে শক্ত ভিত এনে দেন সৌম্য সরকার ও নাজমুল হোসেন শান্ত। সৌম্য আউট হওয়ার আগে ৫৯ বলে ৩ চার ও ৩ ছক্কায় ৬১ রানের ইনিংস খেলে।

For Advertisement

750px X 80px
Call : +8801911140321

সৌম্য বিদায় নেওয়ার পর শান্তও বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি। শান্ত’র ব্যাট থেকে আসে ৬৮ বলে ৫৯ রানের ইনিংস। এরপর বাকি কাজ সারেন ইয়াসির আলী ও আফিফ হোসেন। ইয়াসির ৩৮ রানে আর আফিফ ৪৫ রানে অপরাজিত থাকেন।

এর আগে টসে হেরে বাংলাদেশি বোলারদের দুর্দান্ত বোলিংয়ে ৭৩ রান তুলতেই ৫ উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে যায় আফগানিস্তান। তবে ওয়াহেদুল্লাহ শাফাক ও দারুইস রাসুলির ৬৭ রানের জুটিতে ঘুরে দাঁড়ায় আফগান যুবারা। শাফাককে (৩৪) বিদায় করেন তানভির ইসলাম।

এরপর আবার তারিক স্টানিকজাইকে নিয়ে রানের চাকা সচল রাখেন রাসুলি। দুজনের জুটিতে আসে ৮৬ রান। এর মাঝে দুর্দান্ত সেঞ্চুরি তুলে নেন রাসুলি। তার ১২৮ বলে ৭ চার ও ৭ ছক্কায় সাজানো ১১৪ রানের ইনিংসটি শেষ হয় সৌম্যর বলে। এর আগে ২৭ বলে ৩৪ রান করা তারিককে বিদায় করেন সৌম্য।

বাংলাদেশের হয়ে ৩টি করে উইকেট নেন হাসান ও সৌম্য। তানভীর ইসলাম নেন ২ উইকেট।

এর আগে বুধবার আসরের প্রথম সেমিফাইনালে ভারতকে হারিয়ে ফাইনালে পা রেখেছে পাকিস্তানের যুবারা। আগামী শনিবার মিরপুরে ফাইনালে পাকিস্তানের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ।

দুই গ্রুপে ভাগ হয়ে মোট ৮ দল অংশ নিচ্ছে এবারের এশিয়ার যুবাদের এ টুর্নামেন্টে।

For Advertisement

750px X 80px

Call : +8801911140321

কারেন্ট নিউজ বিডি'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। 

পাঠকের মতামত: