প্রচ্ছদ / জাতীয় / বিস্তারিত

For Advertisement

750px X 80px

Call : +8801911140321

পূজার দিনে নির্বাচন সরকারের নীলনকশা: নুর

নিজস্ব প্রতিবেদক   ১৫ জানুয়ারি ২০২০, ৯:০০:১১

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীদের যেকোনো আন্দোলনে তাদের পাশে থেকে রাস্তায় থাকেন ভিপি নুর। অসুস্থ হওয়া সত্ত্বেও বিভিন্ন আন্দোলনে শিক্ষার্থীদের পাশে তাকে দেখা গেছে। কিন্তু সরস্বতী পূজার দিনে সিটি নির্বাচন পেছানোর আন্দোলনে শিক্ষার্থীদের পাশে দেখা যাচ্ছে না ভিপি নুরকে।

তবে বুধবার (১৫ ডিসেম্বর) বিকেলে ডাকসু ভবনে নিজের কক্ষে সাংবাদিকরা তাকে আন্দোলন প্রসঙ্গে প্রশ্ন করলে তিনি জবাবে বলেন, অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশে পূজা ও নির্বাচন একই দিনে হতে পারে না। ষড়যন্ত্র বা বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির জন্যই পরিকল্পিতভাবে পূজার দিনে নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করা হয়েছে।

For Advertisement

750px X 80px
Call : +8801911140321

তিনি বলেন, সরস্বতীপূজার দিনে ঢাকা সিটি নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা সরকারের একটি নীলনকশা। বর্তমান নতজানু নির্বাচন কমিশন সরকারের কনসার্ন ছাড়া নিশ্চয়ই নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করেনি! কোনো ষড়যন্ত্র বা বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির জন্যই পরিকল্পনা করে এ কাজটি করা হয়েছে। বাংলাদেশ অবশ্যই অসাম্প্রদায়িক চেতনার একটি দেশ। সরস্বতীপূজা সনাতন ধর্মের একটি বড় উৎসব। এই দিনে নির্বাচন হতে পারে না। নির্বাচনের তারিখ এগিয়ে বা পিছিয়ে দেওয়া উচিত।

নুরুল হক বলেন, ঢাকার দুই সিটির নির্বাচনের দিন মানুষ ভোট দেবে, নাকি তাদের ধর্মীয় অনুষ্ঠান পালন করবে? তাই আমাদের দাবি, নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তন করতে হবে। হয় এগোতে হবে, নয়তো পেছাতে হবে। আমরা মনে করি, এখানে সরকার ও নির্বাচন কমিশনের কোনো ষড়যন্ত্র বা কারসাজি রয়েছে। পূজার দিনে নির্বাচনের তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে পরিকল্পিতভাবে।

গত ২২ ডিসেম্বর দুপুরে ডাকসু ভবনের নিজ কক্ষে নুরুলের ওপর হামলা চালান বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ ও মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের একাংশের নেতা-কর্মীরা। এ সময় নুরুলের সঙ্গে থাকা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় ও কয়েকটি কলেজের কয়েকজন ছাত্রসহ অন্তত ৩০ জন আহত হয়েছিল। হামলার পর আজই প্রথম নিজ কার্যালয়ে প্রবেশ করেছেন নুর। এসময় ডাকসুর সমাজসেবা সম্পাদক আখতার হোসেন, ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের নেতা-কর্মীরাও উপস্থিত ছিলেন। গতকাল বুধবার দুপুর আড়াইটায় ডাকসুর প্রশাসনিক কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদ রুমের তালা খুলে দিয়ে নুরকে চাবি বুঝিয়ে দেন। এর আগে হামলার ঘটনার তদন্তের জন্য চাবি দেয়নি কর্তৃপক্ষ।

এদিকে রাজু ভাস্কর্যে বিক্ষোভ সমাবেশে আন্দোলনকারীদের সঙ্গে একাত্মতা জানিয়ে ৩০ জানুয়ারির বদলে অন্য কোনো দিন নির্বাচন অনুষ্ঠানের দাবি জানান ডাকসু এজিএস সাদ্দাম হোসাইন।

For Advertisement

750px X 80px

Call : +8801911140321

কারেন্ট নিউজ বিডি'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। 

পাঠকের মতামত: