For Advertisement

750px X 80px

Call : +8801911140321

জম্মু-কাশ্মীরের স্বায়ত্তশাসন ফিরিয়ে দেয়ার প্রস্তাব পাস পাকিস্তান পার্লামেন্টে

কারেন্ট নিউজ বিডি   ৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ৭:৫৫:০৬

জম্মু-কাশ্মীরের স্বায়ত্তশাসন বাতিল সংক্রান্ত ভারতীয় সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করতে পাকিস্তানে পার্লামেন্ট সর্বসম্মতিক্রমে একটি প্রস্তাব পাস করেছে। ৫ই ফেব্রুয়ারি কাশ্মীর সংহতি দিবস পালন করছে পাকিস্তান। এ দিনকে সামনে রেখে মঙ্গলবার পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ জাতীয় পরিষদে পাস হয় ওই প্রস্তাব। পাকিস্তানের রাষ্ট্র পরিচালিত টেলিভিশন খবরে বলেছে, কাশ্মীরিদের স্বাধীনতা আন্দোলনে সমর্থন দিতে প্রতি বছর ৫ই ফেব্রুয়ারি সংহতি দিবস পালন করা হয়। এ উপলক্ষে কাশ্মীরি জনগণের প্রতি জাতিসংঘের প্রস্তাবের অধীনে সমর্থন প্রকাশ করেছেন প্রেসিডেন্ট আরিফ আলভি, প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। তারা বলেছেন, ভারত দখলীকৃত কাশ্মীরি জনগণের প্রতি রাজনৈতিক, নৈতিক ও কূটনৈতিক সমর্থন অব্যাহতভাবে দিয়ে যাবে পাকিস্তান। এ খবর দিয়েছে অনলাইন ডন, তুরস্কের সংবাদ সংস্থা আনাডোলু।

প্রেসিডেন্ট আলভি বলেছেন, ভারতের অবৈধ দখলদারিত্ব বর্ধিতকরণের মাধ্যমে ওই অঞ্চল দখল করে নেয়া জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের প্রস্তাবনার সরাসরি বিরোধী।

For Advertisement

750px X 80px
Call : +8801911140321

মুসলিমদের স্বশাসনের অধিকার থেকে বঞ্চিত করার মাধ্যমে তাদেরকে অব্যাহতভাবে নির্যাতন করে যাচ্ছে ভারত। প্রেসিডেন্ট আলভি আবারো বলেন, আঞ্চলিক এই ইস্যুটি প্রতিটি ফোরামে তুলে ধরবে পাকিস্তান। তিনি আরো বলেন, ভারতের মানবাধিকার লঙ্ঘন এবং ভারতীয় জনতা পার্টি নেতৃত্বাধীন সরকারের অবস্থান পরিষ্কার হয়ে যাওয়ার ফলে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় তাদেরকে প্রত্যাখ্যান করেছে। তার ভাষায়, ৫ই আগস্ট ভারতের অবৈধ পদক্ষেপের ফলে ভারত দখলীকৃত জম্মু-কাশ্মীর ও পাকিস্তানের জনগণের মধ্যে বন্ধন আরো শক্তিশালী হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেন, ভারতীয় সেনাবাহিনীর নৃশংস আচরণেই পুরোপুরি ফুটে উঠেছে সরকারের মৌলিক মানবাধিকার পরিস্থিতি। তিনি আরো বলেন, ভারতের পদক্ষেপের নিন্দা জানিয়েছে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়, মানবাধিকার বিষয়ক সংগঠনগুলো এবং আন্তর্জাতিক মিডিয়া। তিনি বলেন, ওই অঞ্চলের বিশেষ মর্যাদা কেড়ে নিয়ে, ৯ লাখের বেশি সেনা মোতায়েন করে কাশ্মীরের ৮০ লাখ মানুষকে তাদের নিজদেশেই বন্দি করে রেখেছে ভারত সরকার। জম্মু-কাশ্মীর থেকে অবিলম্বে তিনি কারফিউ প্রত্যাহার করার দাবি করেছেন। অজ্ঞাত স্থানে যে হাজার হাজার মানুষকে অপহরণ করে নিয়ে আ আটকে রাখা হয়েছে তাদের মুক্তি দাবি করেছেন ইমরান। বাস্তব পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণের জন্য তিনি দখলীকৃত এলাকায় আন্তর্জাতিক মানবাধিকার বিষয়ক সংগঠন ও আন্তর্জাতিক মিডিয়ার প্রবেশাধিকার দিতে ভারত সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

সেনাপ্রধান জেনারেল কমর জাভেদ বাজওয়া বলেছেন, ভারতের সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে কাশ্মীরের জনগণ আর একা নেই। কয়েক লাখ কাশ্মীরিকে বন্দি করে রাখা হয়েছে। নিরপরাধ সাধারণ মানুষের অধিকারকে দমিয়ে রেখেছে ভারত। তিনি বলেন, জাতিসংঘ রেজুলেশনের অধীনে স্বাধীনতা অর্জনের জন্য লড়াই করছে কাশ্মীর।

For Advertisement

750px X 80px

Call : +8801911140321

কারেন্ট নিউজ বিডি'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। 

পাঠকের মতামত: