For Advertisement

750px X 80px Call : +8801911140321

সীমান্তে উত্তেজনা হ্রাসে একমত চীন ও ভারত: দিল্লি

কারেন্ট নিউজ বিডি   ৫ সেপ্টেম্বর ২০২০, ৫:১০:৩৭

চীন-ভারত সীমান্তে উত্তেজনা হ্রাসে বেইজিংয়ের সঙ্গে কাজ করতে সম্মত হয়েছে দিল্লি। রাশিয়ার মস্কোয় শুক্রবার (৪ সেপ্টেম্বর) দুই দেশের প্রতিরক্ষামন্ত্রীর বৈঠক শেষে শনিবার ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে এক বিবৃতিতে এ কথা জানানো হয়।

বিবৃতিতে বলা হয়, উভয় পক্ষই একটি বিষয়ে একমত হয়েছে যে, তারা কেউই সীমান্ত পরিস্থিতি আরো জটিল হয়ে উঠতে পারে বা সীমান্ত এলাকায় উত্তেজনা ছড়াতে পারে এমন কোনো কিছু করবে না।

For Advertisement

750px X 80px
Call : +8801911140321

সাংহাই কোঅপারেশন অর্গানাইজেশন-এর সম্মেলনে অংশ নিতে ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংহ এবং চীনের প্রতিরক্ষামন্ত্রী জেনারেল উই ফ্যাং মস্কোতে গেছেন। সম্মেলনের ফাঁকে শুক্রবার দিনের শেষভাগে এই দুই নেতা নিজেদের সীমান্তের বিষয়ে দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে বসেন। ২ ঘণ্টা ২০ মিনিট ধরে তাদের ওই বৈঠক চলে বলে পরে এক টুইটে জানান রাজনাথ।ৎঅনুপ্রবেশ পাল্টা অনুপ্রবেশের অভিযোগ নিয়ে গত মে মাস থেকে লাদাখ সীমান্তে চীন ও ভারতের মধ্যে নতুন করে উত্তেজনা দেখা দেয়। ১৫ জুন যা চূড়ান্ত রূপ নিয়েছিল। মে মাসের পর শুক্রবারই প্রথম দুই দেশের মধ্যে এমন শীর্ষ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের মুখোমুখি বৈঠক হলো।

ওই বৈঠক নিয়ে চীনের সরকার সমর্থিত গ্লোবাল টাইমস পত্রিকার প্রতিবেদনে শনিবার বলা হয়, বৈঠকে উই ফ্যাং ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথকে বলেছেন, ‘সীমান্তে বর্তমানে যে উত্তেজনা চলছে তার পুরো দায় দিল্লির’।

হিমালয়ের পশ্চিমাঞ্চলে লাদাখের গালওয়ান ভ্যালিতে গত ১৫ জুন চীন ও ভারতের সেনাদের মধ্যে মারামারিতে ২০ ভারতীয় সেনা নিহত হন। চীনও তাদের সেনাদের হতাহত হওয়ার কথা স্বীকার করেছে, যদিও তারা সংখ্যা প্রকাশ করেনি। কোনো আগ্নেয়াস্ত্রের ব্যবহার ছাড়াই ওই সংঘাতে এত সেনা হতাহত হয়।

ওই সংঘাতের পর উভয় দেশ লাইন অব কন্ট্রোল-এলএসি জুড়ে অতিরিক্ত সেনা মোতায়েন করেছে। লাদাখ সীমান্ত পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে গত বৃহস্পতিবার সেখানে যান ভারতের সেনাপ্রধান। এক মাসের ব্যবধানে এটি ছিল ভারতীয় সেনাপ্রধানের দ্বিতীয়বার লাদাখ সফর।

For Advertisement

750px X 80px Call : +8801911140321

কারেন্ট নিউজ বিডি'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। 

পাঠকের মতামত: