প্রচ্ছদ / ঢাকা / বিস্তারিত

For Advertisement

750px X 80px Call : +8801911140321

প্যান্ট পরায় মাদ্রাসাছাত্রকে মারধর, ৩০ জনকে জুতাপেটা!

কারেন্ট নিউজ বিডি   ১৫ মার্চ ২০১৮, ১২:৩২:০৪

ঢাকা, ১৫ মার্চকারেন্ট নিউজ বিডি : নারায়ণগঞ্জ বন্দরে পাঞ্জাবির সঙ্গে প্যান্ট পড়ে আসায় এক মাদ্রাসাছাত্রকে মারধরের অভিযোগ ওঠে এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে। এই মারধরের প্রতিবাদ করায় ৩০ শিক্ষার্থীকে মাদ্রাসার মাঠে দাঁড় করিয়ে জুতাপেটা করার অভিযোগ উঠেছে প্রতিষ্ঠানের সভাপতির বিরুদ্ধে। বন্দর উপজেলার মুছাপুর দারুল সুন্নাহ দাখিল মাদ্রাসায় মঙ্গলবার জুতাপেটার এই ঘটনার পর থেকে শিক্ষার্থীরা ক্লাস বর্জন করে বিক্ষোভ করছে।

শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, গত বৃস্পতিবার দশম শ্রেণির ছাত্র সাজ্জাদ পাঞ্জাবির সঙ্গে প্যান্ট পরে মাদ্রাসায় আসায় আরবি শিক্ষক আব্দুস সালাম তাকে মারধর করেন। এ ঘটনায় প্রতিবাদ জানায় শিক্ষার্থীরা। মঙ্গলবার বিকালে ম্যানেজিং কমিটির সভা চলাকালে বিনা এজেন্ডায় আরবি শিক্ষক সালাম মাস্টার বিষয়টি উত্থাপন করেন। ঘটনা শুনে মাদ্রাসার সভাপতি শাহাদাৎ হোসেন ক্ষুদ্ধ হন এবং তিনি নিজে দশম শ্রেণির ৩০ শিক্ষার্থীকে মাঠে দাঁড় করিয়ে জুতাপেটা করেন। এ ঘটনায় মাদ্রাসা শিক্ষার্থীরা ক্ষুদ্ধ হয়ে বুধবার সকাল ক্লাস বর্জন করে বিক্ষোভ করে এবং তারা থানায় গিয়ে অভিযোগ করে।
এ ব্যাপারে মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা মহিউদ্দিন জানান, ‘ছাত্ররা উচ্ছৃঙ্খল আচরণ ও মাদ্রাসার মহিলা শিক্ষকের সঙ্গে খারাপ মন্তব্য করায় সভাপতি তাদের জুতাপেটা করেছেন।’
এ বিষয়ে বন্দর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আ ক ম নুরুল আমিন বলেন, ‘শিক্ষার্থীরা অন্যায় করলে তাদের অভিভাবকদের ডেকে এনে তাদের কাছে বিচার দেয়া যেতো। শিক্ষার্থীদের জুতাপেটা করা শাসন নয়, এটা অপরাধ। এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’
এ ব্যাপারে মুছাপুর ইউপি চেয়ারম্যান মাকসুদ হোসেন জানান, ‘আমরা বিষয়টি নিয়ে অভিভাবক ও গণ্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে সুষ্ঠু বিচার করে দেবো। এ আশ্বাসে শিক্ষার্থীরা শান্ত রয়েছে।’
ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) একেএম শাহীন মন্ডল জানান, ‘পাঞ্জাবির সঙ্গে জিন্স প্যান্ট পড়ায় আরবি শিক্ষক এক শিক্ষার্থীকে মারধর করেছেন। এই ঘটনার প্রতিবাদ করার কারণে শিক্ষার্থীদের জুতাপেটা করা হয়েছে। এছাড়া শিক্ষার্থীদের বিরুদ্ধে মহিলা শিক্ষিকাদের ইভটিজিং করার অভিযোগ রয়েছে। বিষয়টি মাদ্রাসার শিক্ষক, অভিভাবক ও শিক্ষার্থীদের সঙ্গে আলোচনা করা সমাধান করা হবে।’

For Advertisement

750px X 80px
Call : +8801911140321

তবে অভিযোগের বিষয়ে মাদ্রাসা সভাপতি শাহাদাৎ হোসেনের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

For Advertisement

750px X 80px Call : +8801911140321

কারেন্ট নিউজ বিডি'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। 

পাঠকের মতামত: