প্রচ্ছদ / রংপুর / বিস্তারিত

For Advertisement

750px X 80px Call : +8801911140321

এমপি লিটন হত্যা মামলায় সাক্ষ্যগ্রহণ ২ এপ্রিল

কারেন্ট নিউজ বিডি   ২০ মার্চ ২০১৮, ৩:৪৯:৩৫

ঢাকা, ২০ মার্চকারেন্ট নিউজ বিডিগাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ) আসনের প্রয়াত এমপি মঞ্জুরুল ইসলাম লিটন হত্যা মামলার সাক্ষ্যগ্রহণের তারিখ পিছিয়ে ২ এপ্রিল করেছে আদালত।

রবিবার সাক্ষ্যগ্রহণের তারিখ থাকলেও মামলার প্রধান আসামি অসুস্থ হয়ে যাওয়ায় তা পিছিয়ে আগামী ২ এপ্রিল করা হয়েছে।

For Advertisement

750px X 80px
Call : +8801911140321

জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক রাশেদা সুলতানা এ দিন ধার্য করেন।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) মো. শফিকুল ইসলাম শফিক বিষয়টি নিশ্চিত করে ঢাকাটাইমসকে বলেন, এমপি মঞ্জুরুল ইসলাম লিটন হত্যা মামলায় গত ৭ ফেব্রুয়ারি সাবেক এমপি আব্দুল কাদের খানসহ আট আসামির বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করেছে আদালত। চার্জ গঠনের পর বিচারক সাক্ষ্যগ্রহণের তারিখ ১৮ মার্চ ধার্য করে। ওই তারিখ অনুযায়ী সাক্ষ্য দেয়ার জন্য মামলার বাদী ফাহমিদা বুলবুল কাকুলী আদালতে উপস্থিত হয়েছিলেন। এছাড়াও মামলার প্রধান আসামি আব্দুল কাদের খানকে কারাগার থেকে আদালতে আনা হয়। কিন্তু আদালতে আসার পর তিনি অসুস্থ হয়ে পড়ায় আর সাক্ষ্যগ্রহণ করা হয়নি। পরে বিচারক এ মামলার সাক্ষ্যগ্রহণের তারিখ আগামী ২ এপ্রিল ধার্য করেন।

২০১৬ সালের ৩১ ডিসেম্বর সুন্দরগঞ্জ উপজেলার বামনডাঙ্গার শাহবাজ (মাস্টারপাড়া) গ্রামে নিজ বাড়িতে আততায়ীর গুলিতে নিহত হন মঞ্জুরুল ইসলাম লিটন। এ ঘটনায় লিটনের বোন ফাহমিদা বুলবুল কাকুলী অজ্ঞাত ৪-৫ জনকে আসামি করে সুন্দরগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা করেন। পরে ২০১৭ সালের ৩০ এপ্রিল একই আসনের (জাপা) সাবেক এমপি অবসরপ্রাপ্ত কর্নেল আব্দুল কাদের খাঁনসহ ৮ জনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে পুলিশ।

চার্জশিটভুক্ত অন্য আসামিরা হলেন- স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা চন্দন কুমার, কাদের খানের পিএস শামছুজ্জোহা, তার ব্যক্তিগত গাড়িচালক আব্দুল হান্নান, ভাড়া করা কিলার মেহেদী হাসান, শাহীন মিয়া, রানা মিয়া ও কসাই সুবল চন্দ্র। আসামিদের মধ্যে চন্দন কুমার পলাতক রয়েছেন। বাকিরা কারাগারে আটক রয়েছে।

For Advertisement

750px X 80px Call : +8801911140321

কারেন্ট নিউজ বিডি'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। 

পাঠকের মতামত: