প্রচ্ছদ / জাতীয় / বিস্তারিত
 

For Advertisement

600 X 120

চারুকলায় চলছে বর্ষবরণের শেষ প্রস্ততি

১৩ এপ্রিল ২০১৮, ৪:৩৮:০৪

ঢাকা, ১৩ এপ্রিলকারেন্ট নিউজ বিডি : দরোজায় কড়া নাড়ছে বাঙালির প্রাণের উৎসব পহেলা বৈশাখ। আর একদিন পরেই নববর্ষ উদযাপনের রঙ গায়ে মেখে উৎসবে মেতে ওঠবে জাতি। বর্ষবরণ উৎসবে বরাবরের মতোই এবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদ থেকে বের হবে ঐতিহ্যবাহী মঙ্গল শোভাযাত্রা। তবে এবার চাকরিতে কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনকারীদের সঙ্গে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সংঘর্ষ ও উদ্ভূত পরিস্থিতিতে প্রস্তুতিকাজ ব্যাপকভাবে ব্যাহত হয়। স্বার্থান্বেষী একটি মহল রাতের আঁধারে চারুকলা অনুষদের ভেতরে প্রবেশ করে তছনছ করে শোভাযাত্রার নানা সামগ্রী। সংশয় তৈরি হয় এবারের আয়োজন নিয়ে। তবে চারুকলার অদম্য শিক্ষার্থীরা সেই বাধা ডিঙিয়ে নতুন করে প্রস্তুতি চালিয়ে যাচ্ছে। তারা জানিয়েছেন, প্রতিবারের মতো এবারও যথাসময়ে চারুকলা অনুষদ থেকে বের হবে বর্ণিল মঙ্গল শোভাযাত্রা।

 

For Advertisement

600 X 120

সঠিক সময়ে চারুকলা অনুষদ থেকে শোভাযাত্রা বের করতে একযোগে ঝাপিয়ে পড়েছেন শিক্ষার্থীরা। বৃহস্পতিবার সকালে দেখা গেছে শিক্ষার্থীরা মঙ্গল শোভাযাত্রার নানা অনুষঙ্গ তৈরিতে মগ্ন। অনুষদের গেট বন্ধ রয়েছে। চারুকলার শিক্ষার্থী ছাড়া তেমন কাউকেই ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না। ভেতরে দেখা যায়, জয়নুল গ্যালারির সামনে কেউ রং-তুলি নিয়ে আঁকছে, কেউ কাগজ কেটে বা কাঠ কেটে বা মাটির সরায় রং লাগিয়ে তৈরি করছে বিভিন্ন বৈশাখী মোটিফ। কেউ বা তৈরি করছে পেপার ম্যাশ ও রং-বেরঙের মুখোশ। বিশাল আঙিনাজুড়ে নানা রঙের শিল্পকর্ম নির্মাণে ব্যস্ত শিক্ষার্থীরা। বর্তমান শিক্ষার্থীদের সঙ্গে মনের টানে যোগ দিয়েছে অনুষদের সাবেক শিক্ষার্থীরাও। সরাচিত্র, পেপার কাটিংয়ে নির্মিত মুখোশ, কাগজের ম্যাশের মুখোশ, জলরঙে চিত্রকর্ম ও শোভাযাত্রার মূল অনুষঙ্গ কাঠামো নির্মাণ ইত্যাদি কাজ করছে অসংখ্য শিক্ষার্থী।

চারুকলা অনুষদের ডিন শিল্পী নিসার হোসেন বললেন, ‘কোটা সংস্কারের আন্দোলনকারীদের সঙ্গে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সংঘর্ষে যে পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে তাতে শোভাযাত্রা আয়োজনের কার্যক্রম ব্যাপকভাবে ব্যাহত ও ক্ষতিগ্রস্ত করেছে। এ ছাড়া আন্দোলনকারীদের মাঝে লুকিয়ে থেকে কিছু স্বার্থান্বেষী শোভাযাত্রার নানা সামগ্রী নষ্ট করে দিয়েছে। আমরা আবার পূর্ণ উদ্যমে কাজ শুরু করেছি। কোনো প্রতিকূলতাই আমাদের থামাতে পারবে না।’

‘মানুষ ভজলে সোনার মানুষ হবি’-  ফকির লালনের গানের এই পঙক্তি থেকেই এবারের মঙ্গল শোভাযাত্রার এবারের স্লোগান বেছে নেওয়া হয়েছে। বঙ্গাব্দ ১৪২৫ উদ্্যাপনের অন্যতম অনুষঙ্গ মঙ্গল শোভাযাত্রার এবারের দায়িত্বে রয়েছে চারুকলা অনুষদের ২০তম (সম্মান) ব্যাচের শিক্ষার্থীরা। তাদের সঙ্গে অনুষদের সাবেক ও বর্তমান শিক্ষার্থী এবং শিক্ষক ও চারুশিল্পীরা যোগ দিয়েছেন। গত ১৫ মার্চ ছবি এঁকে এই প্রস্তুতিকাজের উদ্বোধন করেন বরেণ্য চিত্রশিল্পী রফিকুন নবী।

 

For Advertisement

600 X 120

কারেন্ট নিউজ বিডি'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। 

পাঠকের মতামত: