প্রচ্ছদ / আইন-অপরাধ / বিস্তারিত

For Advertisement

750px X 80px Call : +8801911140321

শিশু সাবিয়া ধর্ষণ ও হত্যা, আসামীরা ধরাছোঁয়ার বাহিরে

কারেন্ট নিউজ বিডি   ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১:২১:১০

ঢাকা, ২২ সেপ্টেম্বর, কারেন্ট নিউজ বিডি : কুষ্টিয়ায় ৬ বছরের শিশু কন্যা সাবিয়া খাতুনকে ধর্ষণের পর নির্মমভাবে গলা টিপে হত্যা করে দুবৃর্ত্তরা। হত্যাকাণ্ডের পর ফুঁসে উঠেছে এলাকাবাসী। দোষীদের দ্রুত গ্রেফতার পূর্বক কঠোর শাস্তির দাবি জানিয়েছেন তারা। এ ঘটনায় মামলা হয়েছে থানায়। দোষীদের গ্রেফতারে মাঠে নামলেও এখনো কাউকে আটক করতে পারেনি পুলিশ।

এদিকে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ঘটনার সাথে যারা জড়িত এবং দোষীদের খুব শিগগিরই খুঁজে বের করে আইনের আওতায় আনার আশ্বাস দিয়েছেন কুষ্টিয়ার নব্য পুলিশ সুপার (এসপি) এসএম তানভীর আরাফাত।

For Advertisement

750px X 80px
Call : +8801911140321

জানা গেছে, কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার মিটন গ্রামের দিনমুজুর ভাষা মিয়ার ৬ বছরের শিশু কণ্যা সাবিয়া। স্থানীয় একটি স্কুলে ক্লাস ওয়ানে লেখাপড়া করত সে। সাবিয়ার বড় বোনের নাম সারিকা খাতুন(১০)। সে স্থানীয় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৩য় শ্রেণির ছাত্রী। আর সংসারের অভাব ঘোচাতে ১৭ মাস আগে ওমানে পাড়ি জমান সাবিয়ার মা কাজলী খাতুন।

সাবিয়ার বাবা ভাষা মিয়া জানান, স্ত্রী না থাকায় দুই মেয়েকে নিয়েই ছিল তার সংসার। শুক্রবার(১৪ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যার আগ পর্যন্তও বাড়ির পাশেই মাঠে খেলেছিল মাবিয়া। এরপর তার বন্ধুরা বাড়ি ফিরলেও সাবিয়া সেই রাতে আরে ফেরেনি। স্থানীয় খোঁজাখুজি করেও তার হসিদ না পেয়ে বাড়ি এসে ঘুমিয়ে পড়ি। পরদিন শনিবার সকালে বাড়ির পাশে ধান ক্ষেতের নালায় সাবিয়ার ক্ষত-বিক্ষত দেহ দেখতে পায় স্থানীয়রা আমাকে খবর দেয়। মেয়ের হত্যাকাণ্ডের খবর শুনে সুদূর ওমান থেকে দেশে ফিরেছেন মা কাজলী খাতুন। তিনি মেয়ে হত্যা কঠোর বিচার দাবি করেছেন।

এদিকে ফুটফুটে সাবিয়া হত্যাকাণ্ডের পর ফুঁসে উঠেছে এলাকাবাসী। তারা জানান, কোন আশ্বাস নয়, হত্যাকারীদের সনাক্ত করে কঠোর শাস্তি দিতে হবে।

মিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলাম জানান, ময়না তদন্তের পর জানা গেছে ধর্ষণের পর শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয় শিশুটিকে। সাবিয়ার হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় মিরপুর থানায় অজ্ঞাতদের আসামী করে মামলা করেছেন বাবা ভাষা মিয়া। কাউকে আটক করা হয়েছে কি না জিজ্ঞাসা করলে তিনি জানান, সাবিয়া সম্পর্কে তথ্য নিতে স্থানীয় কয়েকজনকে থানায় ডেকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। তবে এখনো কাউকে আটক করা হয়নি। পুলিশ দোষীদের সনাক্ত করে গ্রেফতার করতে মাঠে কাজ করছে।

For Advertisement

750px X 80px Call : +8801911140321

কারেন্ট নিউজ বিডি'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। 

পাঠকের মতামত: