প্রচ্ছদ / চট্টগ্রাম / বিস্তারিত

For Advertisement

750px X 80px Call : +8801911140321

চাঁদপুরের বিপ্লব দেব ত্রিপুরার ভাবি মুখ্যমন্ত্রী! মিষ্টি বিতরণ

কারেন্ট নিউজ বিডি   ৬ মার্চ ২০১৮, ৩:২৬:৪৪

ভারতীয় ত্রিপুরা রাজ্যের বিধান সভা নির্বাচনে ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) সভাপতি বিপ্লব কুমার দেব জয়লাভ করেছেন। এতে করে তার মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার পথ সুগম হয়ে যাচ্ছে।

বিপ্লব কুমার দেবের পৈত্রিক নিবাস চাঁদপুরের কচুয়া উপজেলার ৪নং পূর্ব সহদেবপুর ইউনিয়নের মেঘদাইর গ্রামে। তার পিতা হিরুধন দেব মুক্তিযুদ্ধের সময় সপরিবারে ভারতে চলে যান। বিপ্লব কুমার দেবরা চার ভাই-বোন।

For Advertisement

750px X 80px
Call : +8801911140321

দলের এই বিজয়ের সংবাদে কচুয়ায় আনন্দ-উৎসাহ-উদ্দীপনা বিরাজ করছে। এ সংবাদ শোনার সাথে সাথে তার গ্রামের বাড়ি ও আশপাশের গ্রামগুলোতে মিষ্টি বিতরণ করা হয়েছে।

বিপ্লব কুমার দেবের চাচা কচুয়া উপজেলা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি প্রাণধন দেব কবিরাজ ও এলাকাবাসী জানায়, ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের বিধান সভা নির্বাচনে ৬০টি আসনের মধ্যে বিপ্লব কুমার দেবের দল ৪৩টি আসনে জয়লাভ করে।

এর মধ্যে সিপিএম প্রায় ১৬টি আসন এবং প্রার্থী মৃত্যুজনিত কারণে এক আসনে নির্বাচন স্থগিত করা হয়। গত ২৮ ফেব্রুয়ারি ওই নির্বাচন ভোটগ্রহণ শেষ হয় এবং শনিবার (৩ মার্চ) বেসরকারিভাবে ফলাফল ঘোষণা হয়েছে।

ভারতীয় জনতা পার্টির সভাপতি বিপ্লব কুমার দেব ৪৩টি আসনে বিজয়ী হওয়ায় তাকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন- কচুয়া উপজেলা আ’লীগের সভাপতি মো. আইয়ুব আলী পাটওয়ারী, সাধারণ সম্পাদক সোহরাব হোসেন চৌধুরী সোহাগ, কচুয়া পৌর আ’লীগের আহ্বায়ক আকতার হোসেন সোহেল ভূইয়া, পৌর মেয়র ও উপজেলা যুবলীগের সভাপতি নাজমুল আলম স্বপন, সাধারণ সম্পাদক মো. শাহজালাল প্রধান জালাল, পূর্ব সহদেবপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. ইমাম হোসেন সোহাগ, কচুয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি প্রিয়তোষ পোদ্দার।

প্রসঙ্গত, কচুয়ার কৃতি সন্তান, ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপির) সভাপতি বিপ্লব কুমার দেব বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের জাতীয় কাউন্সিলে ভারতীয় ক্ষমতাসীন দলের প্রতিনিধি হিসেবে গত বছর বাংলাদেশ সফরে আসেন। পরে সম্মেলন শেষে তিনি তার নিজ পৈত্রিক বাড়ি কচুয়ার মেঘদাইর আসলে তাকে কচুয়া প্রেসক্লাবের উদ্যোগে সংবর্ধনা দেয়া হয়।

For Advertisement

750px X 80px Call : +8801911140321

কারেন্ট নিউজ বিডি'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। 

পাঠকের মতামত: