প্রচ্ছদ / জাতীয় / বিস্তারিত

আমি জড়িত ছিলাম না, আল্লাহ এর বিচার করবেন: বাবর

১১ অক্টোবর ২০১৮, ১:১৬:০৯

বিএনপির নেতৃত্বাধীন জোট সরকারের মন্ত্রিসভায় যে কয়েকজন খুব দ্রুত প্রভাবশালী হয়ে ওঠেন, তাদের মধ্যে অন্যতম ছিলেন সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবর। তারেক রহমানের সাথে ঘনিষ্ঠতাই ছিল তার ক্ষমতাবান হয়ে উঠার মূল ভিত্তি।

রাজধানীর নাজিমুদ্দিন রোডে পুরনো ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের সামনে স্থাপিত ঢাকার ১ নম্বর দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক শাহেদ নূর উদ্দিন বুধবার এ রায় ঘোষণা করেন।

রায়ে সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবর, সাবেক উপমন্ত্রী আব্দুস সালাম পিন্টুসহ ১৯ জনের ফাঁসি ও বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান, বেগম খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক সচিব হারিছ চৌধুরী, বিএনপি নেতা কাজী শাহ মোয়াজ্জেম হোসেন কায়কোবাদসহ ১৯ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

রায় ঘোষণার পর লুৎফুজ্জামান বাবর আদালতে চিৎকার করে বলতে থাকেন, আল্লাহ এর বিচার করবেন। আমাকে বার বার রিমান্ডে নিয়ে তারেক রহমানকে এ ঘটনায় জড়িত বলে স্বীকারোক্তি নেয়ার চেষ্টা করা হয়েছে। মুফতি হান্নানের কথিত স্বীকারোক্তির উপর ভিত্তি করে এ রায় দেয়া হয়েছে।

রায়ের পর নিজেকে নির্দোষ দাবি করে তিনি এই প্রতিক্রিয়া জানান বলে মার্কিন সংবাদমাধ্যম এবিসি নিউজের এক প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

বাবরের প্রতিক্রিয়া ও রায়ের সময়ের পরিস্থিতি তুলে ধরে ওই নিউজের খবরে বলা হয়, রায় দেয়ার সময় দুবার বিদ্যুৎ–সংযোগ চলে যাওয়ায় বিচারককে বাধা পেতে হয়। রায়কে কেন্দ্র করে আদালতের বাইরে নিরাপত্তাব্যবস্থা জোরদার ছিল। রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীরা বলছেন, তারেক রহমান ও অন্যদের আরও কঠোর সাজা চেয়ে উচ্চ আদালতে আপিল করার বিষয়ে চিন্তাভাবনা চলছে।

চলতি বছরের ১ জানুয়ারি এ মামলায় সব আসামির সর্বোচ্চ শাস্তি দাবি করে যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষ করে রাষ্ট্রপক্ষ। মোট ৪৯২ জন সাক্ষীর মধ্যে রাষ্ট্রপক্ষে ২২৫ জনের সাক্ষ্য নেয়া হয়েছে।

আর আসামি পক্ষে ১২ জন সাক্ষ্য দিয়েছেন। মামলায় ১৪৪টি আলামত ও ৫৫টি বস্তু প্রদর্শন করা হয়েছে। গত বছরের ৩০ মে এ মামলায় সাক্ষ্যগ্রহণ কার্যক্রম শেষ হয়। আর গত বছরের ১২ জুন মামলায় ৩১ আসামির আত্মপক্ষ শুনানি শেষ হয়।

কারেন্ট নিউজ বিডি'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। 

পাঠকের মতামত: