প্রচ্ছদ / অর্থনীতি / বিস্তারিত

প্রতারণা ও জালিয়াতির দায়ে কারাগারে এসএ গ্রুপের মালিক শাহাবুদ্দিন

১৯ অক্টোবর ২০১৮, ৭:২৩:৪১

প্রতারণা ও ঋণ জালিয়াতির অভিযোগে ব্যাংক এশিয়ার করা মামলায় গ্রেফতার এসএ গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) এবং এসএ ওয়েল রিফাইনারী লিমিটেডের ম্যানেজিং ডিরেক্টর শাহাবুদ্দিন আলমকে আদালতের আদেশে কারাগারে পাঠানো হছে।

বুধবার ব্যাংক এশিয়া লিমিটেডের চট্টগ্রামের ইপিজেড থানায় দায়ের করা মামলায় তাকে রাজধানীর গুলশান থেকে গ্রেফতার করে সিআইডি। পরে আদালতে নেওয়া হলে মহানগর হাকিম শরাফুজ্জমান আনসারী ব্যবসায়ী শাহাবুদ্দিন আলমকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। আদালতে শাহাবুদ্দিনের পক্ষে কোনো আইনজীবী ছিলেন না।

সিআইডির বিশেষ পুলিশ সুপার মোল্যা নজরুল ইসলাম জানান, গত বছর চট্টগ্রামে অর্থঋণ আদালতে শাহাবুদ্দিনের বিরুদ্ধে মামলা করে ব্যাংক এশিয়া। সেই মামলায় তাকে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠানো হয়।

সিআইডি’র সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) শারমিন জাহান জানান, এসএ গ্রুপের মালিক শাহাবুদ্দীনের বিরদ্ধে প্রতারণা ও জালিয়াতির একাধিক মামলা রয়েছে। ব্যাংক এশিয়ার দায়ের করা একটি মামলায় তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

এসএ গ্রুপের শাহাবুদ্দিন আলম বাণিজ্যিক কার্যক্রম পরিচালনার জন্য বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি বাণিজ্যিক ব্যাংক ও ব্যাংকবহির্ভূত আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে বিভিন্ন সময়ে বিপুল পরিমাণে ঋণ সুবিধা গ্রহণ করেন। তার মোট ঋণের পরিমাণ ৩ হাজার ৬২২ কোটি ৪৮ লাখ ৪৫ হাজার ৫৯ টাকা। এর মধ্যে চট্টগ্রামের ব্যাংক এশিয়া লিমিটেডের সিডিএ অ্যাভিনিউ শাখা থেকে তার নেয়া ঋণের পরিমাণ ৭০৯ কোটি ২৭ লাখ ৩৫ হাজার টাকা।

এছাড়ও শাহাবুদ্দিন আলম ইউনাইটেড এন্টারপ্রাইজের নুরুল আমিন লাবলুর কাছ থেকে ১০ কোটি ও মেওয়া ওয়েল অ্যান্ড ফ্যাডস থেকে ২৬ কোটি ৭৭ লাখ ৭৪ হাজার টাকা ঋণ নিয়েছেন।

ইসলামী ব্যাংকের আগ্রাবাদ শাখা থেকে ৯৪০ কোটি ১০ লাখ ৫১ হাজার, ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক লিমিটেডের আগ্রাবাদ শাখা থেকে ৩৬ কোটি ১১ লাখ ৪১ হাজার, ন্যাশনাল ব্যাংক লিমিটেডের আগ্রাবাদ শাখা থেকে ৭০১ কোটি ৪৯ লাখ ৩১ হাজার, পূবালী ব্যাংকের আগ্রাবাদ শাখা থেকে ২৯৭ কোটি ১১ লাখ ৪৮ হাজার, কৃষি ব্যাংকের ষোলশহর শাখা থেকে ১৭৯ কোটি ৬৮ লাখ ৩৭ হাজার, অগ্রণী ব্যাংক কর্পোরেট শাখা থেকে ৫৪৮ কোটি ৪৪ লাখ, জনতা ব্যাংক শেখ মুজিব রোড কর্পোরেট শাখা থেকে ১১৮ কোটি ২২ লাখ ৭১ হাজার ও প্রাইম ব্যাংকের আগ্রাবাদ শাখা থেকে ৫৫ কোটি ২৫ লাখ ৫২ হাজার টাকা ঋণ নিয়েছেন তিনি। এ সব ঋণ তিনি পরিশোধ করেননি। ঋণ পরিশোধ না করায় তার বিরুদ্ধে প্রতারণা ও জালিয়াতির অভিযোগে একাধিক মামলা করা হয়।

শাহবুদ্দিন আলম মালিকানাধীন এসএ গ্রুপের অধীনে তেল পরিশোধন, খাদ্য পণ্য, দুগ্ধজাত খাদ্যপণ্য, পানীয়, সিমেন্ট, বিদ্যুৎসহ বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান রয়েছে।বাজারে এই গ্রুপের পরিচিত পণ্যগুলোর মধ্যে রয়েছে গোয়ালিনি কনডেন্সড মিল্ক, গুঁড়ো দুধ, মুসকান ড্রিকিং ওয়াটার, সয়াবিন তেল, ঘি, আটা, ময়দা ইত্যাদি। এছাড়াও বেসরকারি মার্কেন্টাইল ব্যাংক লিমিটেডের পরিচালক তিনি।

কারেন্ট নিউজ বিডি'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। 

পাঠকের মতামত: