প্রচ্ছদ / রাজশাহী / বিস্তারিত

For Advertisement

750px X 80px Call : +8801911140321

দুপচাঁচিয়ায় এক গৃহবধূর আত্মহত্যা : স্বামী গ্রেপ্তার

কারেন্ট নিউজ বিডি   ২০ অক্টোবর ২০১৮, ২:২৬:০৯

দুপচাঁচিয়ায় একটি ভাড়াবাসায় স্বামীর মানসিক নির্যাতনে সাবাতানি খাতুন(২৪) নামের এক গৃহবধু গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। শুক্রবার (১৯ অক্টোবর) সকালে মহিলা কলেজ রাস্তায় জনৈক আবুল কালাম আজাদের বাসার ভাড়াটিয়া মাসুদ রানার স্ত্রী এ আত্মহত্যা করেন।

নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, গত জানুয়ারি মাসে প্রেমের সূত্র ধরে সাবাতানি ও মাসুদ রানার বিয়ে হয়। মাসুদ রানা(২৫) ব্যাংক এশিয়া দুপচাঁচিয়া এজেন্ট ব্যাংকিং এর এ্যাসিসট্যান্ট রিলেশনশিপ অফিসার (এআরও) পরে কর্মরত এবং নওগাঁ জেলার রানী নগর থানার অলংকারদীঘি গ্রামের জনৈক আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে।

For Advertisement

750px X 80px
Call : +8801911140321

বিয়ের পর মার্চ মাসে আলতাফনগর কারিগরি কলেজের অধ্যক্ষ আবুল কালাম আজাদের মহিলা কলেজ সংলগ্ন প্রফেসর পাড়ায় বাসায় ভাড়াটিয়া হিসাবে বসবাস করছিলেন।  প্রতিবেশিরা জানান, প্রায় প্রতিদিনই স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে প্রচন্ড ঝগড়া-বিবাদ হতো। এর জের ধরেই ঘটনারদিন সকালে মাসুদ তার স্ত্রী সাবাতানিকে মানসিক নির্যাতন শুরু করে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেন। এতে সাবাতানি তার স্বামী মাসুদ রানার মানসিক নির্যাতন সইতে না পেরে সকাল সাড়ে ৮টায় বাসার শয়নকক্ষে গলায় ওড়না দিয়ে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে।

সাবাতানির আত্মহত্যার খবরটি পুলিশ জানতে পেরে দ্রুত ঘটনাস্থলে এসে নিহতের লাশ উদ্ধার করে সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করে ময়না তদন্তের জন্য বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করেন এবং তাৎক্ষনিকভাবে নিহতের স্বামী মাসুদ রানাকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে।

এ ঘটনায় নিহতের বাবা নুরুল ইসলাম তোতা বাদী হয়ে থানায় তার মেয়েকে আত্মহত্যায় প্ররোচনাদানকারী জামাই মাসুদ রানার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।  থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) মিজানুর রহমান বলেন, সাবাতানির আত্মহত্যার খবর পেয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে এবং স্ত্রীকে আত্মহত্যায় প্ররোচনাদানকারী স্বামী মাসুদ রানাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

For Advertisement

750px X 80px Call : +8801911140321

কারেন্ট নিউজ বিডি'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। 

পাঠকের মতামত: