প্রচ্ছদ / আইন-অপরাধ / বিস্তারিত

For Advertisement

750px X 80px Call : +8801911140321

প্রশাসনের হস্তক্ষেপে বাল্যবিয়ে থেকে ছাত্রীর রক্ষা, বরসহ আটক ২

কারেন্ট নিউজ বিডি   ২০ অক্টোবর ২০১৮, ২:৩৩:৪৫

ময়মনসিংহ জেলার গফরগাঁও উপজেলার সরইকান্দা গ্রামে প্রশাসনের হস্তক্ষেপে বাল্যবিয়ে থেকে রক্ষা পেল এক জেএসসি পরীক্ষার্থী। বিয়ে বাড়ির লোকজন প্রশাসনের লোকজনের উপস্থিতি টের পেয়ে বর কনেকে ফেলে অভিভাবক ও কাজী পালিয়ে যায়।

এ সময় বর ও তার ভাইকে আটক করে পুলিশ। কনেকে উদ্ধার করে নির্বাহী ডাঃ শামীম রহমান কর্মকর্তার কার্যালয়ে নিয়ে আসেন।

For Advertisement

750px X 80px
Call : +8801911140321

উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, উপজেলার সরইকান্দা গ্রামের আব্দুল লতিফের মেয়ে ও বনগ্রাম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের জেএসসি পরীক্ষার্থী হ্যাপি আক্তারের সাথে পার্শ্ববতী পুখুরিয়া গ্রামের আবুল কাশেমের ছেলে আনছারুল হকের সাথে বিয়ে বিয়ের আযোজন করে তাদের অভিভাবক। বর আনছারুল হক অপ্রাপ্ত বয়স্ক হলেও বড় বোন রোজিনা আক্তারের জন্ম নিবন্ধন সনদ জাল করে এ বিয়ের আযোজন করে। বৃহস্পতিবার বিকালে কনের বাড়িতে বাল্য বিয়ের খবর পায় উপজেলা র্নিবাহী কর্মকর্তা ডাঃ শামীম রহমান।

পরে উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রেশমা আক্তার, এসিল্যান্ড আশরাফুল সিদ্দিক, মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা খালেদা বেগম ও থানা পুলিশের একটি দল বিয়ে বাড়িতে উপস্থিত হয়। এ সময় প্রশাসনের লোকজন আসার খবর পেয়ে বর আনছারুল হককে রেখে কাজী সহ উভয় পক্ষের লোকজন পালিয়ে যায়। এসিল্যান্ড বাল্যবিয়ের স্বীকার জেএসসি পরীক্ষার্থী হ্যাপী আক্তারকে উদ্ধার করেন।

এ সময় পুলিশ বর আনছারুল হক ও তার চাচাত ভাই আতিকুল ইসলামকে আটক করে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে নিয়ে আসেন। পরে কনেকে ১৮ বছরের আগে বিয়ে না দেওয়ার লিখিত অভিভাবকের কাছে দেওয়া হয়। বর ও তার ভাইকে থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ডাঃ শামীম রহমান।

উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান রেশমা আক্তার বলেন, যে মেয়েটির বিয়ের আযোজন করেছিল তার বড় বোনকেও তাদের অভিভাবক বাল্যবিয়ে দেওয়ায় বিয়ের এক বছর পর স্বামীর ঘর থেকে ফেরত আসে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ডাঃ শামীম রহমান বলেন, বাল্যবিয়ে রোধে জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে ইতোমধ্যে বিভিন্ন স্থানে সেমিনার, সভা, সমাবেশ করে বাল্যবিবাহের কুফল সর্ম্পকে মানুষকে অবহিত করা হচ্ছে। এ বিষয়ে প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক, শিক্ষার্থী, জনপ্রতিনিধি, সমাজের সচেতন ব্যক্তিবর্গ ও সকল পেশার মানুষকে এগিয়ে আসার আহবান জানান। যাতে ১৮ বছরের আগে কোন মেয়েকে বাল্যবিয়ের স্বীকার হতে না হয়।

For Advertisement

750px X 80px Call : +8801911140321

কারেন্ট নিউজ বিডি'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। 

পাঠকের মতামত: