প্রচ্ছদ / খেলাধুলা / বিস্তারিত

For Advertisement

750px X 80px

Call : +8801911140321

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টাইগারদের সহজ জয়

কারেন্ট নিউজ বিডি   ২১ অক্টোবর ২০১৮, ১১:২০:৫৪

প্রত্যাশিত জয়ে সিরিজে শুভ সূচনা করেছে টাইগাররা। ইমরুল কায়েসের দুর্দান্ত সেঞ্চুরি আর বোলারদের দাপটে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথমটিতে র২৮ রানে জয়ী হয়েছে বাংলাদেশ।

প্রথমে ব্যাট করা বাংলাদেশ নির্ধারিত ৫০ ওভার শেষে ৮ উইকেট হারিয়ে ২৭১ রান করে। জবাবে নির্ধারিত ৫০ ওভার থেলে ৯ উইকেট হারিয়ে ২৪৩ রান সংগ্রহ করে জিম্বাবুয়ে।

For Advertisement

750px X 80px
Call : +8801911140321

স্কোর:

বাংলাদেশ: ৫০ ওভারে ২৭১/৮ (লিটন ৪, ইমরুল ১৪৪, মাহমুদ ০, মুশফিক ১৫, মিঠুন ৩৭, মাহমুদউল্লাহ ০, মিরাজ ১, সাইফ ৫০, মাশরাফি ২*, মুস্তাফিজ ১*; জার্ভিস ৪/৩৭, চাতারা ৩/৫৫, টিরিপানো ০/৬০, মাভুটা ১/৪৮, রাজা ০/৩৭, উইলিয়ামস ০/৩২)

জিম্বাবুয়ে: ৫০ ওভারে ২৪৩/৯ (মাসাকাদজা ২১, জুওয়াও ৩৫, টেইলর ৫, আরভিন ২৪, রাজা ৭, উইলিয়ামস ৫০*, মুর ২৬, টিরিপানো ২, মাভুটা ২০, জার্ভিস ৩৭, চাতারা ২*; মাশরাফি ০/৫৫, মিরাজ ৩/৪৬, মুস্তাফিজ ১/২৯, নাজমুল ২/৩৮, সাইফ ০/২৯, মাহমুদউল্লাহ ১/২৪, মাহমুদ ০/১৬)

ফল: বাংলাদেশ ২৮ রানে জয়ী

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দেশের মাটিতে ওয়ানডেতে এটি বাংলাদেশের টানা ১৪তম জয়।

রোববার ( ২১ অক্টোবর) মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ম্যাচে ইমরুল কায়েসের অসাধারণ সেঞ্চুরির ওপর ভর করে বাংলাদেশ ২৭১ রানের চ্যালেঞ্জিং সংগ্রহ গড়ে।

জিম্বাবুয়ে ২৭২ রানের টার্গেটে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুটা ভালোই করেছিল। মাশরাফি-মিরাজের প্রথম স্পেলে সফলতা পায় তারা। হ্যামিল্টন মাসাজাদজা ও চিপহাস জুহওয়াও ওপেনিংয়ে ৪৮ রানের জুটি গড়েন। তবে দলীয় অষ্টম ওভারে মোস্তাফিজুর রহমান এসেই বাজিমাত করেন। চিপহাস জুহওয়াওকে ব্যাট-প্যাডের ফাঁক গলিয়ে বোল্ড করেন তিনি। ২৪ বলে ৪টি চার ও ২টি ছক্কায় ৩৫ করে ভয়ংকর হয়ে ওঠা এই বাঁহাতিকে মাঠ ছাড়া করান।

বাংলাদেশের স্পিন আক্রমণের মুখে নিয়মিত বিরতিতেই উইকেট হারাতে থাকে সফরকারীরা। বিপজ্জনক সিকান্দার রাজাকে মাত্র ৭ রানে বোল্ড করে দেন নাজমুল ইসলাম অপু। ইমরুলের দুর্দান্ত থ্রো আর মুশফিকের দ্রুততায় অধিনায়ক মাসাকাজদা রান-আউট হন ২১ রান করে।জিম্বাবুয়ের পঞ্চম উইকেটের পতন ঘটান মেহেদী মিরাজ। তার মায়াবী ঘূর্ণিতে বোল্ড হয়ে যান ক্রেইগ এরভিন। মিরাজের দ্বিতীয় শিকার হন জুটি গড়ার চেষ্টায় থাকা পিটার মুর (২৬)।

ডোনাল্ড ট্রিপানো (২) রান-আউট হয়ে গেলে সপ্তম উইকেটের পতন হয় জিম্বাবুয়ের। এরপর আবারও মেহেদী মিরাজের ঘূর্ণি। তারই নেওয়া দুর্দান্ত এক ক্যাচে প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন ব্রেন্ডন মাভুতা (২০)। ১০ ওভারে ৪৬ রান দিয়ে এই অল-রাউন্ডার তুলে নেন ৩ উইকেট। মিডল অর্ডারে নেমে বেশ লড়াই করেন শেন উইলিয়ামস। নবম উইকেট জুটিতে কাইলি জার্ভিসকে নিয়ে পঞ্চাশোর্ধ রানের জুটি গড়েন।

৩২ বলে ৩ চার ২ ছক্কায় ৩৭ রান করা জার্ভিসকে ফিরিয়ে ৬৭ রানের এই জুটি ভাঙেন মাহমুদুল্লাহ। শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৯ উইকেটে ২৪৩ রানে থামে জিম্বাবুয়ে। ২৮ রানের জয় তুলে নিয়ে সিরিজে এগিয়ে গেল বাংলাদেশ। ৫৮ বলে ৫ চার ১ ছক্কায় ৫০ রানে অপরাজিত রইলেন শেন উইলিয়ামস। ম্যান অব দ্য ম্যাচ সেঞ্চুরিয়ান ইমরুল কায়েস।

এর আগে দিনের শুরুতে টাইগার ওপেনার লিটস দাস (৪) দ্রুত আউট হয়ে গেলে বড় ধাক্কা লেগেছিল ইনিংসে। দলীয় ১৬ রানের মাথায় সাজঘরে ফিরেন তিনি। অল্প কিছুক্ষণের মধ্যে আউট হয়ে যান অভিষিক্ত ব্যাটসম্যান ফজলে রাব্বিও। তিনি ঝুলিতে কোনো রান নিতে পারেননি। এরপর আশা জাগিয়েও দ্রুত ফিরেন মুশফিকুর রহিম (১৫)।

অবশ্য চতুর্থ উইকেটে ইমরুল ও মিঠুন দারুণ একটি পার্টনারশিপ গড়েন। দুজনে মিলে করেন ৭১ রান। মিঠুন ৪০ বলে ৩৭ রান করে সাজঘরে ফিরেন। এরপর দ্রুত ফিরে যান মাহমুদউল্লাহ (০) ও মেহেদী হাসান মিরাজ (১)।

সপ্তম উইকেট জুটিতে সাইফুদ্দিনকে সঙ্গে ইমরুল আবার রুখে দাঁড়ান। সফলও হন। গড়েন একটি রেকর্ড পার্টনারশিপ, ১২৭ রান। আর ক্যারিয়ারের সেরা ইনিংস খেলে ইমরুল দলকেও গড়ে দেন চ্যালেঞ্জিং সংগ্রহ।

ইমরুল ১৪০ বলে ১৪৪ রানের দারুণ একটি ইনিংস খেলেন। যাতে ১৩ চার ও ছয়টি ছক্কার মার রয়েছে। এটি তাঁর ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস। তরুণ সাইফুদ্দিনও ক্যারিয়ারের সেরা ইনিংস খেলেন। ৬৯ বলে ৫০ রান করেন তিনি।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে ১২৯তম বাংলাদেশি ক্রিকেটার হিসেবে অভিষেক হলো ৩০ বছর বয়সী রাব্বির।

For Advertisement

750px X 80px

Call : +8801911140321

কারেন্ট নিউজ বিডি'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। 

পাঠকের মতামত: