কোরিয়ান শিক্ষার্থীদের বিস্ময়কর বাংলাদেশের গল্প শোনালেন আবিদা

২০ ডিসেম্বর ২০১৮, ২:২৮:১২

পৃথিবীর মানচিত্রে বাংলাদেশ সত্যিই এক অনন্য উপমা। এই উপমা, এই উদাহরণ অগ্রগতির ও উন্নয়নের। অর্থনীতি ও আর্থ সামাজিক বেশির ভাগ সূচকে বাংলাদেশ ছাড়িয়ে গেছে এশিয়ার উদীয়মান কিছু দেশকে। বলাবাহুল্য, নিম্ন আয়ের দেশসমূহকে ফেলে এখন মধ্যম আয়ের দেশ বাংলাদেশ। এই দেশের এমনই বর্ণাঢ্য অগ্রগতির গল্প শুনলেন কোরিয়ান শিক্ষার্থীরা।

কোরিয়ান শিংগু বিশ্ববিদ্যালয়ে আজ যেন মেলা বসেছিলো শিক্ষার্থীদের। উদ্দেশ্যে ছিল বাংলাদেশকে জানা, বাংলাদেশের উন্নয়নের গল্প শোনা। তাদের বিস্ময়- বাংলাদেশের এগিয়ে যাওয়ায় বর্ণিল গল্প শুনিয়েছেন, গল্প শুনিয়ে শিক্ষার্থীদের তন্ময় করে রেখেছিলেন কোরিয়ায় নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আবিদা ইসলাম। কোরিয়ান শিক্ষার্থীরা মনোযোগ দিয়ে বর্ণময় এক দেশের উপাখ্যান শুনলো।

এক নদী রক্ত পেরিয়ে অজির্ত বাংলাদেশের স্বাধীনতার ইতিহাস থেকে শুরু করে আর্থ সামাজিক ক্ষেত্রে বিগত ১০ বছরে বাংলাদেশের বিস্ময়কর সাফল্যের কাহিনী কোরিয়ান ছাত্র-ছাত্রীদের কাছে তুলে ধরেছেন আবিদা ইসলাম। বাংলাদেশ সম্পর্কে জানার উপচে পড়া আগ্রহ ছিল শিক্ষার্থীদের চোখে মুখে। রাষ্ট্রদূতের সাথে দূতাবাসের কর্মকর্তারাও ধৈর্য ও আগ্রহ সহকারে তাদের জিজ্ঞাসা ও কৌতূহলের উওর দিয়েছেন।

কোরিয়ার শিংগু বিশ্ববিদ্যালয়ে বাংলাদেশ বিষয়ক দিনব্যাপী সেমিনারে উপস্থিত ছিলেন শিংগু বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রেসিডেন্ট মিঃ সু; কিউং লি, বিভিন্ন অনুষদের ডিন, অধ্যাপকবৃন্দসহ ১০০ জন কোরিয়ান শিক্ষার্থী। বাংলাদেশ দূতাবাস ও শিংগু বিশ্ববিদ্যালয়ের নেচ্যার ক্লাবের যৌথ উদ্দ্যোগে এই সেমিনারের আয়োজন করা হয়।

সেমিনারের আকর্ষনীয় বিষয় ছিল কোরিয়ানদের বাংলাদেশের ঐতিহ্যবাহী পোশাক পরিধান করা এবং বাংলাদেশী সুস্বাদু চানাচুর, সমুচা ও চিকেন বিরিয়ানী দিয়ে সেমিনারে উপস্থিত অতিথিদের আপ্যায়ন করা। অনুষ্ঠানের শেষাংশে বাংলাদেশের দেশাত্ববোধক গান ও নৃত্য পরিবেশনা উপস্থিত সবাই আনন্দচিত্তে উপভোগ করেন। বাংলাদেশ দূতাবাসের এ ধরনের সফল আয়োজন কোরিয়ানদের নিকট বাংলাদেশ সম্পর্কে একটি উচ্চতর ধারণার সৃষ্টি করবে এ কথা নিঃসংকোচে বলা যায়।

কারেন্ট নিউজ বিডি'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। 

পাঠকের মতামত: